রঙ বাংলাদেশ এর ২৭তম বর্ষপূর্তি

হাছিবুর রহমান | প্রকাশিত: ২৩ ডিসেম্বর ২০২১ |   

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী।বাংলাদেশের দুটি গুরুত্বপূর্ণ ঘটনার সমসময়ে ২০ ডিসেম্বর ২৭ পূর্ণ করেছে বাংলাদেশের শীর্ষসারির ফ্যাশন ব্র্যান্ড রঙ বাংলাদেশ। 

২০১৫ সালের ছন্দপতন এবং পরবর্তীতে রঙ থেকে রঙ বাংলাদেশ হিসাবে অভিযাত্রা শুরুর পর পেরিয়েছে ৭ বছর। বাংলাদেশের ফ্যাশন ইন্ডাষ্ট্রির চলমানতার সঙ্গে খাপ খাইয়ে চলার প্রয়াসে অবিচল রঙ বাংলাদেশ অন্যদের মতোই এক দূঃসহ সময়ের মুখোমুখি। 

বিশ্বব্যাপী মহামারিতে বেসামাল সব শিল্প। ফ্যাশন ইন্ডাস্ট্রিও এর বাইরে নয়। এমনকি ভুবনায়নের জোয়ারে ঢুকে পড়া বেনো জল সামলাতে দেশীয় ফ্যাশন ইন্ডাস্ট্রির পরিস্থিতি যখন প্রতিকূল, তখন করোনার আঘাত একে আরো সমস্যাসঙ্কুল করেছে। প্রথম ঢেউ কাটিয়ে ওঠার আগেই দ্বিতীয় ঢেউয়ে পরিস্থিতি জটিলতর আকার ধারণ করেছে। এ বছরের দুটো বড় উৎসব এবং ঈদ ছিল নিরুত্তাপ। পরবর্তীতে বাজার তুলনায় স্বাভাবিক হলেও ফ্যাশন ইন্ডাস্ট্রির পালে বাতাস লাগেনি। অবস্থার উন্নতি হয়নি এখনো। এই পরিস্থিতির উত্তরণ কবে হবে, কবে মানুষ সত্যিকারের স্বস্তির মুখ দেখবে তা এই মুহুর্তে বলা রীতিমত দূষ্কর। 

তবুও এই ক্রান্তিতে উপনীত রঙ বাংলাদেশ ইতিবাচকভাবেই ভাবতে চায়। কারণ ২০২১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী। উপরন্তু যে মানুষটির কল্যাণে আমরা পেয়েছি এই দেশ, সহস্র বছরের শ্রেষ্ঠ সেই মানুষটির জন্মশতবার্ষিকীও। দুটি মহান উপলক্ষ্যকে সামনে রেখে রঙ বাংলাদেশ আবার আশায় বলীয়ান হতে চায়। প্রতীক্ষা করতে চায় ইতিবাচক ভবিষ্যতের। সমান উদ্দীপনায় রাঙাতে চায় সময়কে; যে ব্রত নিয়ে ২৬ বছর আগে শুরু হয়েছিল চারজন তরুণের স্বপ্নযাত্রা।


বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যকে সমুন্নত রেখে ২০ ডিসেম্বর পূর্ণ করেছে ২৭ বছর। রঙ বাংলাদেশ-এর একটি শক্তিশালী টিম ফ্যাশনের এই কর্মযজ্ঞকে এগিয়ে নিচ্ছে। দেশীয় ফ্যাশন শিল্পের অন্যতম এই ব্র্যান্ড ইতিমধ্যে বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রান্তে পৌঁছে গেছে। আউটলেটের সংখ্যা এখন ২৩। নারায়ণগঞ্জ, বসুন্ধরা সিটি, ওয়ারী, সীমান্ত স্কয়ার, যমুনা ফিউচার পার্ক, মোহাম্মদপুর, চট্টগ্রাম, সিলেট, কুমিল্লা, ফেনী, বাহ্মণবাড়িয়া, ময়মনসিংহ, নেত্রকোণা, শেরপুর, কিশোরগঞ্জ, টাঙ্গাইল, ঈশ্বরদী, বগুড়া, রাজশাহী, খুলনা, কুষ্টিয়া এবং মাদারিপুরে রয়েছে রঙ বাংলাদেশ। ফলে রঙ বাংলাদেশ-এর অনুরাগীরা হাতের নাগালেই পাচ্ছেন প্রিয় ব্র্যান্ডের পোশাক ও উপহারসামগ্রী। 

সমান্তরালে ডিজিটাল উৎকষ্যের সঙ্গে তাল মিলিয়ে গড়ে উঠেছে রঙ বাংলাদেশের অনলাইন প্লাটফর্ম, নিজস্ব ই-কর্মাস সাইট ও ফেসবুকসহ নানা সামাজিক মাধ্যম। ফলে দেশে-বিদেশের ক্রেতারা বাসায় বসেই পাচ্ছেন সকল সামগ্রী।


মন্তব্য লিখুন :